উপাচার্যের সামনে ঢাবির ৪ ছাত্রীর অভিনব প্রতিবাদ

0
87
kota

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি সুফিয়া কামাল হল থেকে মধ্যরাতে ছাত্রীদের বের করে দেওয়ার ঘটনায় উপাচার্যের সামনে অভিনব প্রতিবাদ জানিয়েছেন চার ছাত্রী।

শুক্রবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যায় বেগম রোকেয়া হলে ‌‘র‌্যাগ ডে’উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দিতে গেলে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সামনে ঘটনার প্রতিবাদে ও বিচার দাবি করে পোস্টার হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে যান হলের চার শিক্ষার্থী।

মৌন প্রতিবাদকারী ৪ ছাত্রী হলেন- উইমেন অ্যান্ড জেন্ডার স্টাডিজ বিভাগের জয়ন্তী রেজা ও আফরিন শাফি, ইতিহাস বিভাগের তানজীলা তানজি এবং ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ছাত্রী শোভনা দিপ্তি। এরা সবাই চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী।

এ সময় উপাচার্যের সঙ্গে রোকেয়া হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা উপস্থিত ছিলেন। হল অডিটরিয়ামেরর বাইরে উপাচার্যের গাড়ির কাছে ওই ছাত্রীরা দাঁড়িয়ে ছিলেন। উপাচার্য সেখান দিয়ে যাওয়ার সময় দাঁড়িয়ে তাদের পোস্টার পড়েন এবং কোনো কথা না বলে চলে যান।

অভিনব এই প্রতিবাদে অংশ নেয়া তানজিনা তানজি বলেন, ‘কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করার কারণে বৃহস্পতিবার মেয়েদের রাতের আঁধারে কবি সুফিয়া কামাল হল থেকে বের করে দেয়া হয়েছে। এত রাতে অভিভাবক ডেকে কোনরূপ নিরাপত্তার কথা চিন্তা না করে হল প্রশাসন এই জঘন্য কাজ কীভাবে করতে পারে? তাই আমরা মনে করি, আমরা কেউ বিশ্ববিদ্যালয়ে নিরাপদ নই, এর প্রতিবাদে উপাচার্যের সামনে আমরা পোস্টার হাতে দাঁড়িয়েছিলাম।’

প্রতিবাদকারী ৪ ছাত্রীর প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল- ‘সুফিয়া কামাল হলের মেয়েদের বের করে দেয়া হলো কেন?’, ‘রাতের আঁধারে হামলা কেন?’, ‘ক্যাম্পাস কোনো গ্যাস চেম্বার নয়’, ‘পুলিশমুক্ত ক্যাম্পাস চাই’।

আরেক শিক্ষার্থী জয়ন্তী রেজা বলেন, ‘সুফিয়া কামাল হলের মেয়েদের অন্যায়ভাবে গভীর রাতে বের করে দিয়েছে হল প্রশাসন। এছাড়া ক্যাম্পাসে সাম্প্রতিক পুলিশি হামলা, আন্দোলনকারীদের হয়রানি, হল থেকে বের করে দেয়ার প্রতিবাদেই আমরা সেখানে ছিলাম। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে এমন চলতে পারে না। সে জন্যই প্রতিবাদস্বরূপ সেখানে আমরা দাঁড়িয়েছি। ভিসি স্যার যখন অনুষ্ঠান শেষে বের হন, তখন তিনি আমাদের দেখে চলে চান। কিছু বলেননি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here